মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ August ২০২১

'Leadership Development Programme for Power Sector Organisations' ১৩ তম ব্যাচ


প্রকাশন তারিখ : 2021-08-05

 

বাংলাদেশ পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট কর্তৃক আয়োজিত 'Leadership Development Programme for Power Sector Organisations' শীর্ষক প্রশিক্ষণের (১৩ তম ব্যাচ) উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ৫ আগস্ট ২০২১ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জনাব নসরুল হামিদ , এমপি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

 

অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ তারিখে শহীদ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়।

 

কোভিড-১৯ প্যানডেমিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করে বিদ্যুৎ খাতের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে সামনে এগিয়ে নেয়ার জন্য নেতৃত্বের উন্নয়ন ও বিকাশে বিদ্যুৎ বিভাগের সরাসরি তত্ত্বাবধানে বিপিএমআই নিয়মিত যে প্রশিক্ষণ কর্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে, তার আওতায় “লিডারশীপ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম ফর পাওয়ার সেক্টর অর্গানাইজেশন্স’ প্রশিক্ষণটি পরিচালিত হচ্ছে। বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উপ-পরিচালক/ নির্বাহী প্রকৌশলী/ ডিজিএম পর্যায়ের মোট ৫০ জন কর্মকর্তাকে নিয়ে ১২ দিনব্যাপী (সপ্তাহে ৩ দিন) ১৩ তম ব্যাচের প্রশিক্ষণ কোর্সটি অনুষ্ঠিত হবে।

 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান এবং বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অবঃ)।

 

সকল অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তৃতার শুরুতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে নির্মম ভাবে শহীদ আমাদের জাতির পিতা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে ও তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জনাব নসরুল হামিদ , এমপি তাঁর বক্তব্যে বলেন, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের কাজের পরিধি আগের থেকে অনেক বিস্তৃত ও পরিবর্তিত হয়েছে বিধায়, বর্তমানে এ প্রতিষ্ঠানকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে প্রকল্প নিতে হবে। এ প্রকল্প সহ অন্য সকল প্রকল্পের পরিচালকদের লিডারশীপ সম্পর্কে প্রশিক্ষণ নিয়ে তা কর্মক্ষেত্রে চর্চা করলে প্রকল্পে সফলতা আসবে। এছাড়া উন্নত মানের গ্রাহকসেবা প্রদান, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সহিত সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রাখা, গ্রাহকদের অভিযোগ দ্রুত ও বুদ্ধিদীপ্তভাবে ম্যানেজ করা, দুর্যোগের সময় ক্ষয়ক্ষতি কমানো ও গ্রাহকসেবা সমুন্নত রাখতে হলে লিডারশীপ কোয়ালিটি অর্জন এবং তা বাস্তবায়নের কোন বিকল্প নেই। এ সকল বিষয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ও উদাহরণ নিয়ে কেস স্টাডি করা যেতে পারে মর্মে তিনি মত প্রকাশ করেন।

 

এই কোভিডকালীন সময়ে বিপিএমআই অনলাইনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ আয়োজন অব্যাহত রাখায় তিনি বিপিএমআই এর ভূয়সী প্রশংসা করেন। একই সাথে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন কেরানীগঞ্জে বিপিএমআই এর স্থায়ী ক্যাম্পাসের কাজ সম্পন্ন হলে বিপিএমআই এর কার্যক্রম আরও বিস্তৃত ও উন্নত হবে। পরিশেষে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপর বিশ্বাস ও আস্থা রেখে সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার যে উদ্যোগ নিয়েছেন, তা বাস্তবায়নে সকলকে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ও নিবেদিতপ্রাণ হবার আহবান জানিয়ে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান তাঁর বক্তৃতায় বলেন, লিডারশীপ প্রশিক্ষণটি বিপিএমআই এর একটি জনপ্রিয় প্রশিক্ষণ কোর্সে পরিণত হয়েছে। লকডাউনে এটি আয়োজন অব্যাহত রাখার জন্য তিনি বিপিএমআই এর প্রশংসা করেন। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তাদের গ্রাহক সেবা প্রদানে দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করতে হবে। “আমরা জনগণের সেবক” এই মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে হবে। তিনি পল্লী বিদ্যুতের “আলোর ফেরিওয়ালা” “দুর্যোগে আলোর গেরিলা” এ সকল জনবান্ধব কর্মসূচীর উদাহরণ দিয়ে বলেন এর মাধ্যমে গ্রাহকদের দ্রত বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি নিশ্চিত হয়েছে, এই কার্যক্রম কে আরও বিস্তৃত ও গতিশীল করতে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হবে এবং এক্ষেত্রে বিপিএমআই এর লিডারশীপ কোর্সটি অত্যন্ত সহায়ক হবে। তিনি লিডারশীপ প্রশিক্ষণে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে প্রথিতযশা প্রশিক্ষকদের নিয়োজিত করা হয় মর্মে উল্লেখ করে প্রশিক্ষণটিকে গুরুত্বের সহিত নিয়ে এটি থেকে অর্জিত জ্ঞান ও দক্ষতা কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগানোর জন্য প্রশিক্ষণার্থীদের আহবান জানান।

 

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অবঃ) তাঁর বক্তৃতায় লিডারশীপ প্রশিক্ষণে গভীরভাবে মনোনিবেশ করার জন্য প্রশিক্ষণার্থীদের আহবান জানান এবং এর মাধ্যমে তাদের চিন্তার দুয়ার প্রসারিত হবে ও দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তিত হবে মর্মে মত প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, অতীতের ব্যর্থতা মুছে ফেলে বর্তমান ও ভবিষ্যতের জন্য গতিশীল ও উদ্ভাবনী কর্মপরিবেশ তৈরি করতে লিডারশিপ গুণাবলী বিকশিত করতে হবে। তিনি মানবসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে কাঠামোগত উন্নয়ন সার্থক হবে মর্মে মত প্রকাশ করেন। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ গ্রাহকদের একটা বড় অংশ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অধীন উল্লেখ করে তিনি বলেন কর্মকর্তাদের নিজেদেরকে স্ব-প্রণোদিত হয়ে নেতৃত্ব প্রদানের মাধ্যমে এই বিশাল গ্রাহকদের সেবা প্রদান কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে হবে। তিনি লিডারশিপ প্রশিক্ষণটি চালু রাখার জন্য বিপিএমআইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং প্রশিক্ষণটি এন্ট্রি লেভেল অর্থাৎ পিবিএস এর এজিএম লেভেল থেকে শুরু করার আগ্রহ ব্যক্ত করেন ।

 

এ কোর্সে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের মধ্যম পর্যায়ের ৫০ জন কর্মকর্তা এ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করবেন। বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্ব প্রদান করেন এমন কর্মকর্তাদের নেতৃত্ব (Leadership) সম্পর্কে তত্ত্বীয় জ্ঞান অর্জন এবং তা’ প্রয়োগে সক্ষম করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এ কোর্সটির আয়োজন করা হয়। বিদ্যুৎ খাতের কর্মকর্তাদের মধ্যে যারা বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃত্ব দেন বা কিছু সংখ্যক কর্মীকে পরিচালনা করেন, তাদের মধ্যে নেতৃত্বের গুণাবলী বিকাশের জন্য বাংলাদেশ পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের এটি একটি বিশেষ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি।

 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিপিএমআই-এর রেক্টর জনাব মোঃ মাহবুব-উল-আলম এনডিসি। স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন বিপিএমআই-এর এমডিএস এবং বিদ্যুৎ বিভাগের যুগ্মসচিব জনাব গোলাম রব্বানী।



Share with :

Facebook Facebook